লাইফ সপোর্টে থাকা কেন্দ্রীয় নেতা তরিকুলেল বিরুদ্ধে ককটেল বিস্ফোরনের গায়েবী মামলা পুলিশের!!

0
574

লাইফ সপোর্টে থাকা কেন্দ্রীয় নেতা তরিকুলেল বিরুদ্ধে ককটেল বিস্ফোরনের অভিযোগ গত ৯ অক্টোবর মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। এদিকে দীর্ঘদিন ধরে তিনি ক্যান্সারে ভুগছেন। রাজধানীর একটি বিশেষায়িত হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

এছাড়াও দেশজুড়ে প্রবাসী সাধারন মানুষ, শয্যাশায়ী এমনকি মৃত ব্যক্তিদের নামেও গত কয়েকদিনে গায়েবী মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। আজ এক সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবীর রিজভী।

এ সময় তিনি সারা দেশে গায়েবী মামলার চিত্র তুলে ধরেন।

বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী তরিকুল ইসলাম কিডনী ও ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিছানায় পরে আছেন, তাঁর বিরুদ্ধে পল্টন, খিলগাঁও ও মতিঝিল থানায় মামলার এজাহারে তাঁর নাম উল্লেখ করে গায়েবি মামলা করা হয়েছে। পল্টন মডেল থানার মামলা নং-২৩, তাং-১১.০৯.২০১৮, ধারা: ১৪৩/১৪৭/১৪৯/১৮৬/৩৫৩/৩০৭/৩৩২/৩৩৩/১১৪/৩৪ দ: বি: এবং বিষ্ফোরক আইনের ৩ ধারায় গায়েবি মামলায় আসামি করা হয়েছে।

 সাবেক কাউন্সির মোঃ আজিজুল্লাহ, গত ২০১৬ সালের মে মাসে মৃতবরণ করেন এবং মোঃ আব্দুল মান্নাফ গত ০৪ আগষ্ট ২০১৮ ইং তারিখে হজ্ব পালন করতে সৌদী-আরব যান, উভয়কে চকবাজার মডেল থানায় গত ০৫.০৯.২০১৮ ইং তারিখে এজাহারে আসামি করা হয়েছে। একইভাবে ৯২ বছর বয়সী আরেক ব্যক্তি চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিছানায় শয্যাশয়ী তাকেও আসামি করা হয়েছে।

 কামরাঙ্গীচর থানা বিএনপি’র সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম গত ৩১ আগষ্ট ২০১৮ ইং তারিখে ইন্তেকার করেন, তার বিরুদ্ধে কামরাঙ্গীচর থানার মামলা নং-১৫, তাং-০৬.০৯ ২০১৮, ধারা: ১৪৩/১৪৯/১৮৬/৩৩২/৩৩৩/৩৫৩/৩০৭/৪৩৫/৪২৭/১১৪/৩৪ দ: বি: এবং বিষ্ফোরক দ্রব্যের ৩/৪, এমজি আর নং ৩৮৭/১৮ এর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

 ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র যুগ্ম সম্পাদক, খতিবুর রহমান-গত ১০.০৮.২০১৮ ইং তারিখে হজ্ব পালন করতে যান, অথচ তাকে ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং তারিখে গায়েবি মামলায় আসামি করা হয়েছে। তিনি তখনও ফিরে আসেননি।

 ঢাকা মহানগর এর শান্তিনগরের বিএনপি নেতা মিন্টু কুমার দাস প্রায় দের-বছর পূর্বেই মৃত্যুবরণ করেছেন, অথচ তাকে পল্টন মডেল থানার মামলা নং-২৩, তাং-১১.০৯.২০১৮, ধারা:১৪৩/১৪৭/১৪৯/১৮৬/৩৫৩/৩০৭/৩৩২

/৩৩৩/১১৪/৩৪ দ: বি: এবং বিষ্ফোরক আইনের ৩ ধারায় গায়েবি মামলায় আসামি করা হয়েছে। এছাড়াও পল্টন মডেল থানার মামলা নং-৩১, তাং-১৪.০৯.২০১৮, ধারা: ১৪৩/১৪৭/১৪৯/১৮৬/৩৫৩/৩০৭/৩৩২/৩৩৩/১১৪/৩৪ দ: বি: এবং বিষ্ফোরক আইনের ৩ ধারায় গায়েবি মামলায় মিন্টু দাসকে আসামি করা হয়েছে।

 (১)কাফরুল থানার সাবেক সভাপতি, আলী আজগর মাতব্বর; বিএনপি নেতা শেখ নজরুল ইসলাম এবং বিএনপি নেতা সুমন বহু পূর্বেই মৃত্যুবরণ করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে কাফরুল থানার মামলা নং-২৭, তাং-১৪.০৯.২০১৮, এম জি আর-৩৯৭/১৮, ধারা: বিষ্ফোরকদ্রব্য আইনের ৩/৪। (২) কাফরুল থানার মামলা নং-২৮, তাং-১৪.০৯.২০১৮, এম জি আর নং-৩৯৮/১৮, ধারা: বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫/৩; (৩) কাফরুল থানার মামলা নং-২৯, তাং-১৪.০৯.২০১৮, এমজি আর নং-৩৯৯/১৮,ধারা: বিষ্ফোরদ্রব্য আইনের ৪/৫/৬ ধারায় উক্ত মৃত্য ব্যক্তিদেরকে আসামি করা হয়েছে।

 সাব্বির আহম্মেদ জনি দেওয়ান, সাধারণ সম্পাদক-৪ নং ওয়ার্ড বিএনপি, কাফরুল থানা; পিতা: মৃত মজলিস দেওয়ান, গ্রাম: ১৫/সি, ১/৬০ পূর্ব বাইশটেকি, থানা: কাফরুল মহানগর; তিনি বহু পূর্বেই মালয়েশিয়ায় অবস্থান করছেন অথচ তার বিরুদ্ধে কাফরুল থানার মামলা নং-২৭, তাং-১৪.০৯.২০১৮, এম জি আর-৩৯৭/১৮, ধারা: বিষ্ফোরকদ্রব্য আইনের ৩/৪। (২) কাফরুল থানার মামলা নং-২৮, তাং-১৪.০৯.২০১৮, এম জি আর নং-৩৯৮/১৮, ধারা: বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫/৩; (৩) কাফরুল থানার মামলা নং-২৯, তাং-১৪.০৯.২০১৮, এমজি আর নং-৩৯৯/১৮,ধারা: বিষ্ফোরদ্রব্য আইনের ৪/৫/৬ উক্ত ধারায় আসামি করা হয়েছে।

কুমিল্লা জেলা

 মুরাদনগর থানার অপর এক ব্যক্তি গত ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ বাহারাইনের উদ্দেশ্যে চাকুরী করার জন্য গিয়েছেন অথচ ০৮ ই সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং তারিখে তিনি নাকি মুরাদনগর থানা এলাকায় ইট-পাটকেল ছুড়ে পুলিশকে জখম করেছে।

ফেনী জেলা

 ফেনী জেলাধীন ছাগলনাইয়া থানায় গত ০১.০৯.২০১৮ ইং তারিখে ১৫০ জনকে আসামি করে এজাহার করে, এর মধ্যে উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক-আজাদ হোসেন গত ১৮.০৭.২০১৮ ইং তারিখে হজ্ব পালনের জন্য সৌদী আরব যান।

গাজীপুর জেলা

 গাজীপুর জেলাধীন জয়দেবপুর থানায় গত ইং ১০.০৯.২০১৮ তারিখ ১৪০ জন বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে আসামি করে গায়েবি মামলা করে, যাহার মামলা নং-৭০, তাং-১১.০৯.২০১৮, ধারা: বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩), জি আর নং-১৪৫৫/১৮ এর এজাহারের ক্রমিক নং-৩৪ নম্বর আসামি কাজী সায়েদুল আলম বাবলু-সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপি, ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে যান অথচ তাকেও এই মামলায় আসামি করা হয়েছে।

 এ্যাড: মনির হোসেন চিকিৎসার জন্য বিদেশে অবস্থান করছিলেন তার বিরুদ্ধেও গাজীপুর থানার মামলা নং-৭০, তাং-১১.০৯.২০১৮, ধারা: বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩), জি আর নং-১৪৫৫/১৮ এর এজাহারের ক্রমিক নং-৩৪ নম্বর আসামি করে।

 গাজীপুর জেলাধীন শ্রীপুর থানায় গত ১০.০৯.২০১৮ ইং তারিখ গাড়ী ভাংচুর ও বোমা বিষ্ফোরনে আসামি করে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা গায়েবি মামলা করা হয় কিন্তু শ্রীপুর থানা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি মোঃ সিরাজ কাইয়া ঘটনার ১ সপ্তাহ পূর্বেই ভারতে চিকিৎসার জন্য যান। তাকেও এই গায়েবি মামলায় আসামি করা হয়।

বগুড়া জেলা

 বগুড়া জেলার শাহজাহানপুর উপজেলায় গত-০২.০৯.২০১৮ ইং তারিখ বিএনপি’র নেতাকর্মীরা নাশকতা করার জন্য একত্রিত হয়েছে এই মর্মে শাহজাহানপুর থানা পুলিশ তাজা ককটেল সহ গত ০২.০৯.২০১৮ ইং তারিখ বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে শাহজাহানপুর থানার মামলা নং-০২, তাং-০২.০৯.২০১৮, জি আর নং-১৯৬/১৮, ধারা: বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩)/২৫-ডি এবং বিষ্ফোরক আইনের ৪/৬, মিথ্যা গয়েবি মামলা করে, সেই মামলায় শাহজাহানপুর উপজেলা বিএনপি নেতা খাইরুল বাশাঁরকে আসামি করা হয়েছে। তিনি গত-০২.০৮.২০১৮ ইং তারিখ হজ্ব পালন করার জন্য সৌদী-আরব যান এবং ১৩.০৯.২০১৮ ইং তারিখ হ্জ শেষে তিনি বাংলাদেশে ফেরেন।

 বগুড়া জেলাধীন ধনুট উপজেলার নাংলু গ্রামের মোঃ রুবেল হোসেন চাকুরীর উদ্দেশ্যে গত নভেম্বর ২০১৬ সালে মালয়েশিয়া যান এবং এখনও তিনি মালয়েশিয়া অবস্থান করছেন, অথচ ধনুট থানায় গত-০৭.০৯.২০১৮ ইং তারিখ ধনুট থানার সোনাহাট বাজারে গোপন বৈঠক করতে দেখেছে এবং তাকেও গায়েবি মামলায় আসামি করা হয়েছে। একই মামলায় পক্ষাঘাত গ্রস্থ আসামি ৮৬ বছরের বৃদ্ধ মোঃ আব্দুল খালেক যিনি বিছানায় শয্যাশয়ী তাকেও আসামি করা হয়েছে।

 বগুড়া জেলাধীন গাবতলী উপজেলার বিএনপি নেতা মোঃ সাইফুল ইসলাম কয়েক বছর পূর্বে সৌদী আরবে অবস্থান করছেন, অথচ তাকে আওয়ামী লীগের নেতা বাদী হয়ে গাবতলী থানার মামলা নং-০৫, তাং-০৫.০৯.২০১৮, জি আর নং-২৩৪/১৮, ধারা: ১৪৩/৪৪৭/৪২৭/১১৪/ দ: বি: এবং বিষ্ফোরক দ্রব্য আইনের ৩/৪, ধারায় আসামি করেছেন এবং উক্ত এলাকার মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুর রহিম শিক্ষা মন্ত্রনালয়ে প্রশিক্ষনের জন্য গত ০৩.০৯.২০১৮ ইং তারিখ হইতে ২৪.০৯.২০১৮ ইং তারিখ পর্যন্ত অবস্থান করেন অথচ তিনি বগুড়া শেরপুর থানায় দায়েরকৃত বিএনপি কার্যালয়ে উপস্থিত থাকিয়া অপরাধ করেছেন মর্মে গায়েবি মামলায় আসামি করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা

 ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলাধীন সদর উপজেলার পৌর যুবদলের কর্মী মোঃ জাবেদ গত ইং ০১.১০.২০১৮ তারিখ সদর থানা পুলিশ কর্তৃক গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে আছেন কিন্তু ইং-০৫.১০.২০১৮ তারিখে ব্রাহ্মণবাড়ীয়া সদর থানায় ৩টি গায়েবি মিথ্যা মামলা করা হয়েছে, সেই মামলাগুলোতেও তাকে আসামি করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া জেলা

 কুষ্টিয়া জেলার ইঃ বিঃ থানার মামলা নং- ১২/১১৬, তারিখÑ ২২.০৯.২০১৮ এর ১৫ জনকে এজাহার নামীয় গায়েবি মিথ্যা মামলা করে। উক্ত মামলায় মৃত্যু আরব আলী হরিনারায়ণপুর ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি,পিতা- আহমদ আলী, গ্রাম-পদ্মা নগর, হরিনায়রাণপুর কুষ্টিয়া গত ১০মাস পৃর্বে মারা যান। কবরে থেকে তিনি নির্বাচন বানচাল ও নাশকতা করেছে বলে এজাহারে উল্লেখ করেছে।

 মৃত্যু কাশেম শেখ পিতা- মৃত্যু মিঠুন শেখ গ্রাম – ভাড়ারা,ইউ পি, উপজেলা – কুমার খালী, জেলা কুষ্টিয়া ২০০৬ সালে মারা গিয়েছে তাকে আসামী করা হয়েছে।

 প্রফেসর হারুন অর- রশিদ,বিএনপি নেতা গত জুলাই মাসে তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ভারতে যান এখন পর্যন্ত তিনি ভারতেই অবস্থান করছেন।

 দৌলতপুর থানর সিনিয়র সহ- সভাপতি রেজাউল করিম নিজের চিকিৎসার জন্য গত জুলাই /২০১৮ থেকে ভারতের ভেলরে অবস্থান করছেন। দৌলতপুর থানর মামলা নং- ৪১, তাং-২০.০৯.২০১৮ ধারা বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের ৪/৫/৬ জি আর ৪০২/১৮ উক্ত রেজাউল করিমকে ১৮ নং আসামী করা হয়েছে।

 মোঃ ইব্রাহিম মালিথা, সাধারণ সম্পাদক মিরপুর থানা বিএনপি, পিতা- মৃত- আঃ মজিদ মালিথা সাং- মিরপুর, কুষ্টিয়া গত ইংরাজী ১৭.০৯.২০১৮ তারিখ চিকিৎসার জন্য ভারতে যান। মিরপুর থানার মামলা নং-১৪, তাং-২০.০৯.২০১৮ ধারা বিস্ফোরক আইনের ৪/৬, জি আর নং ১৬৪/১৮ এর এজাহরের ক্রমিক নং-০৮ হিসাবে তাকে আসামী করা হয়েছে। ঘটনার তারিখ দেখানো হয়েছে ২০.০৯.২০১৮ তারিখ ১৯.৫০ মিঃ।

ঝিনাইদহ জেলা

 মৃত শাহজামাল, পিতা: মৃত জহুরুল হক, গ্রাম: জলিলপুর, থানা: মহেশপুর, জেলা: ঝিনাইদহ। গত ২০০৪ সালে মৃত্যুবরণ করেন, তার বিরুদ্ধে কালীগঞ্জ ও জীবননগর সড়কে খালিশপুর নামক স্থানে গাড়ী ভাংচুর ও একাধিক ব্যক্তিকে মারপিট করে দাবি করে পুলিশ মামলা করে। মহেশপুর থানার তদন্তকর্মকর্তা মোঃ সৈয়দ আলী ২০১৩ সালের ২৭ নভেম্বর মামলাটি তদন্ত করার পর মোট ২১৯ জনকে অভিযুক্ত করে ১৮ মাস পরে মামলার অভিযোগ পত্র দাখিল করেন। ৯ বছর পূর্বে যার মৃত্যু হয়েছে কিভাবে তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ জেলা

 হবিগঞ্জের শামছুল হক ক্যানসারে মারা গেছেন-২০১০ সালের মার্চে। একই এলাকার কামাল মিয়া বছর দুয়েক আগে নরসিংদীতে ডাকাতদের হাতে নিহত হন। কিন্তু তাঁরা এখন পুলিশের করা গায়েবি মামলার আসামি। তাঁরা নাকি গত ২৮ সেপ্টেম্বর পুলিশের ওপর হামলা করেছেন।

ঢাকা জেলা

 ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের হাসনাবাদ এলাকার বাসিন্দা বিএনপি নেতার বাবা দাইয়ান মুন্সি মারা গেছেন ১৯৯৮ সালের ৩১ জানুয়ারি। মৃত্যুর ২০ বছর পর তাঁকেও মামলাল আসামি করা হয়েছে। গত ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ তে তাঁকে আসামি করা হয়েছে। তিনি নাকি পুলিশকে উদ্দেশ্য করে ঢিল ছুড়েছেন, হামলা চালিয়েছেন এবং সরকারী কাজে বাধা প্রদান করেছেন।

উৎসঃ দেশ জনতা

Facebook Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here