ভাস্কর্য বিতর্কে কঠোর অবস্থান নেবে আওয়ামী লীগ!

0
418

ভাস্কর্য বিতর্কে কঠোর অবস্থানের ইঙ্গিত দিচ্ছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নেতারা। বাংলাদেশ হেফাজত ইসলামীর আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর বক্তব্যের প্রতিবাদ করে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা।

এই ইস্যুতে এত দিন আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা সরাসরি কোনো মন্তব্য না করলেও শনিবার দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্যের বিরুদ্ধে তাদের অবস্থান ব্যক্ত করেন।

প্রায় দুই মাস ধরে ঢাকার দোলাইপাড় চত্বরে শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ভাস্কর্য তৈরি করার পরিকল্পনার বিরোধিতা করে আসছিল ইসলামী দলগুলো। তবে হেফাজতে ইসলামীর আমীর শুক্রবার প্রথমবারের মতো কড়া ভাষায় নিজের অবস্থান পরিস্কার করেন।

শুক্রবার চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক সম্মেলনে হেফাজতে ইসলামী বাংলাদেশের আমীর বলেন, ‘যেকোনো ভাস্কর্য তৈরি করা হলে তা টেনে-হিঁচড়ে নামিয়ে ফেলা হবে।’

হেফাজতে ইসলামীর আমীরের এমন মন্তব্যের পর ক্ষমতাসীনদল আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের কয়েকজন নেতা ওই মন্তব্যের প্রতিবাদ করে বক্তব্য দিয়েছেন।

কী বলছেন আওয়ামী লীগ নেতারা?
শনিবার সকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য টেনে-হিঁচড়ে নামিয়ে ফেলবে বলে কোনো কোনো ধর্মীয় নেতা ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য দিচ্ছেন।’

তিনি বলেন, ‘শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নিয়ে একটি ধর্মীয় সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর অনভিপ্রেত ও উদ্দেশ্যমূলক বক্তব্য মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, এ দেশের আবহমানকালের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের প্রতি চ্যালেঞ্জ বলে আমরা মনে করি। তারা ইসলামের অপব্যাখ্যা দিয়ে ধর্মপ্রিয় মানুষের মধ্যে বিদ্বেষ তৈরির চেষ্টা করছে।’

এদিকে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেন, ‘উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদ ছড়ানোর অপচেষ্টা’

তিনি বলেন, ‘সৌদি আরব, ইন্দোনেশিয়া, তুরস্ক, পাকিস্তানসহ বিশ্বের অনেক মুসলিম দেশেই ভাস্কর্য রয়েছে। সেখানে বাংলাদেশে ভাস্কর্য হতে পারবে না কেন? এই ধরণের উগ্রবাদী, জঙ্গিবাদী কথাবার্তা বলে তারা ইসলামের মতো শান্তির ধর্মকে মানুষের কাছে বিতর্কিত করে তুলছে ও মূর্খের মতো উন্মাদনা ছড়ানোর চেষ্টা করছে। সরকার বা জনগণ কেউই এটি বরদাস্ত করবে না।’

তবে আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা এই বিষয় নিয়ে মন্তব্য করলেও দলটি বা এর কোনো অঙ্গ সংগঠনের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত ভাস্কর্য তৈরির বিরোধিতা নিয়ে চলতে থাকা দ্বন্দ্বের ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিতে দেখা যায়নি।

রাজধানীর দোলাইপাড় চত্বরে শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ভাস্কর্য তৈরির পরিকল্পনা নিয়ে অক্টোবর মাসের শুরু থেকেই ইসলামী দলগুলো প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছে। তবে বিষয়টি আলোচনায় আসে ১৩ নভেম্বর ঢাকায় একটি সম্মেলনে খেলাফত মজলিশের শীর্ষ নেতার বক্তব্যের পর।

ওই সময় তিনি সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেছিলেন, ভাস্কর্য নির্মাণ পরিকল্পনা থেকে সরে না দাঁড়ালে আরেকটি শাপলা চত্বরের ঘটনা ঘটানো হবে এবং ওই ভাস্কর্য ছুঁড়ে ফেলা হবে। তার ওই বক্তব্য আওয়ামী লীগে অস্বস্তি তৈরি করে।

এরপর আওয়ামী লীগ আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো প্রতিক্রিয়া না দেখালেও দলটির সাধারণ সম্পাদক বলেছিলেন, তারা বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছেন।

উল্লেখ্য, দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে শুরু করে আল্লামা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে। ঢাকায় ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয়ভাবেও সমাবেশ করে ভাস্কর্যের বিরোধীতাকারীদের উচিৎ জবাব দেবার হুমকি দেয়।

সূত্র : বিবিসি

উৎসঃ বিবিসি ,নয়া দিগন্ত

Facebook Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here